Hot Posts

এই ছোট্ট মন্ত্রটি আপনাকে নরকে যাওয়া থেকে বাঁচায়, আপনাকে প্রতিদিন এটি জপ করতে হবে

গুরুদেব শ্রী রামানুজাচার্যকে অষ্টাক্ষর নারায়ণ মন্ত্র দিয়েছিলেন এবং ব্যাখ্যা করেছিলেন, বৎস, যে ব্যক্তি এই পরম পবিত্র মন্ত্রটি একবারও শ্রবণ করে, সে সমস্ত পাপ থেকে মুক্ত হয়। মৃত্যুর পর তিনি সরাসরি ভগবান নারায়ণের ঐশ্বরিক বাসস্থান বৈকুণ্ঠে যান। তখন সে জন্ম-মৃত্যুর বন্ধনে পড়ে না। কিন্তু এটা খুবই গোপন মন্ত্র। যে এটির যোগ্য নয় তাকে এটি বলবেন না।
ঠিক তখনই শ্রী রামানুজাচার্যের মনে একটা দ্বন্দ্ব শুরু হল যে, এই মন্ত্র শ্রবণ করলে একজন কবর পাপীও যখন পাপমুক্ত হয়ে বৈকুণ্ঠে যাওয়ার অধিকার পায়, তখন এই জগতের প্রাণীরা কেন থাকবে? মৃত্যুর ফাঁদ? কেন তাদের এই পবিত্র মন্ত্র পাঠ করা হয় না? কিন্তু গুরু এমন নির্দেশ দেননি। গুরুর আদেশ অমান্য করাও মহাপাপ। তার হৃদয়ে সংগ্রাম চলতে থাকে। এমন অবস্থায় তারা কীভাবে ঘুমাতে পারে? তখন মধ্যরাত। সবাই ঘুমিয়ে পড়েছিল। কিন্তু রামানুজ জেগে ছিলেন। হঠাৎ সে উঠে কুঁড়েঘরের ছাদে উঠে সর্বশক্তি দিয়ে চিৎকার করে বলল, 'নমো নারায়ণ! নমো নারায়ণায়!'


আশেপাশের সবাই আতঙ্কে জেগে উঠল। গুরুদেব রামানুজকে ছাদ থেকে নেমে আসতে বললেন। রামানুজ নেমে এসে জিজ্ঞেস করলেন, কি করছ? রামানুজ উত্তর দিলেন, গুরুদেব, আপনার আদেশ অমান্য করার মহাপাপ করার জন্য আমি নরকে যাব, এতে আমার কোনো অনুশোচনা নেই। কিন্তু নারায়ণ মন্ত্র শ্রবণ করলে এই সমস্ত জীব ভগবানের পরম নিবাসে পৌঁছে যাবে। আমি এতে সন্তুষ্ট। গুরুদেবের চোখ জলে ভরে গেল। রামানুজকে হৃদয়ের কাছে ধরে বললেন, তুমি আমার প্রকৃত শিষ্য। যিনি জীবের মুক্তির জন্য এত চিন্তিত তিনিই জীবের ত্রাণকর্তা হয়ে উঠবেন।

Post a Comment

0 Comments